বরিশাল

ঝুপড়ি ঘরে বিধবা ভিক্ষুক সাফিয়া বেগমের মানবেতর জীবন

।।জিয়াউল হক, (বাকেরগঞ্জ) বরিশাল।।

বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পোড়াচিনা গ্রামের মৃত্য – ওয়াজেদ আলী হাওলাদারের স্ত্রী ভিক্ষুক সাফিয়া বেগমের হোগল পাতার তৈরি ঝুপড়ি ঘরে বসবাস, ভাগ্যে জোটেনি সরকারি বেসরকারি কোন সহায়তা। অনাহারে দিন কাটে অসহায় সাফিয়া বেগমের। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে অনেকটাই ক্লান্ত এ বিধবা নারী সাফিয়া বেগম।

১৭ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) নিয়ামতি ইউনিয়নের সাফিয়া বেগমের বাড়িতে গেলে দেখা যায়, বিকেল ৪ টায় হোগল পাতার জরাজীর্ণ ঘরে মাটির তৈরি চুলুতে ভাত রান্না করছেন তিনি। জানতে চাওয়া হয় শেষ বিকেলে কেন ভাত রান্না করছেন? প্রশ্নের জবাবে বলেন, বাবা অন্যের দুয়ারে দুয়ারে দুমুঠো ভাতের জন্য ভিক্ষা করে চাউল আনছি। তাই ভাত রান্না করতে এত দেরি। সাফিয়া বেগম কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, বাবা মোর খবর নেওয়ার কেউ নেই। একদিন ভিক্ষা না করলে না খেয়েই থাকতে হয়।

১৮ বছর আগে স্বামীকে হারিয়েছি। কয়েক বছর আগে বড় ছেলেটা চিকিৎসার অভাবে অসুস্থ হয়ে মারা গেছে। এখন দুই ছেলে থাকলেও এক ছেলে কিডনি জনিত সমস্যায় চিকিৎসার অভাবে বিছানায় পড়ে রয়েছে। আর এক ছেলে রয়েছে সেও দিনমজুর তার আলাদা সংসার রয়েছে। মোর খোঁজ খবর কেউ নেয় না। মোর এমন বিপদে এগিয়ে আসেননি মেম্বর চেয়ারম্যান কেউ। এখন পর্যন্ত ভাগ্যে জোটেনি বিধবা ভাতা, ভিজিডি কার্ড কিংবা মাথা গোঁজার মতো ঠাঁই একটা ঘর। সাফিয়া বেগমের বাড়িতে তখন দেখা যায়, কোনো রকমের ভাঙ্গাচোরা হোগল পাতার বেড়া ও নারিকেল গাছের পাতার একচালা ছাউনির একটি ঝুপড়ি ঘরে বসবাস করছেন তিনি। ঘরের চারপাশে ঠিক নেই বেড়া, যেদিন রাতে বৃষ্টি আসে সেদিন বিছানার এক কোণে পলিথিন পেঁচিয়ে বসে থাকেন অথবা অন্যের বাড়িতে গিয়ে রাত কাটান তিনি। বৃষ্টির পানিতে সব কিছু ভিজে যায়। বর্তমানে তিনি মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

প্রতিবেশী জুলহাস মৃধা জানান, বৃষ্টি-বাদলের দিন খুব কষ্ট হয় এই বিধবা সাফিয়া বেগমের। আমাদের নিয়ামতি ইউনিয়নের সাফিয়া অতি দরিদ্র হলেও তার ভাগ্যে জোটেনি বিধবা ভাতা ও একটা সরকারি ঘর। নিয়ামতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ হুমায়ূন কবির বলেন, খোজ নিয়ে জরুরী ভিত্তিত্বে সাফিয়া বেগমের ব্যাপাওে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান বলেন, খোজ খবর নিয়ে সাফিয়া বেগমকে সহায়তা প্রদান করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button